কাবুলে বিয়ে বাড়িতে বোমা হামলায় নিহত ৬৩

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে একটি বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা হামলার ঘটনায় ৬৩ জন নিহত হয়েছেন। কর্মকর্তাদের বরাতে এই তথ্য জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম এনবিসি। গতকাল শনিবার স্থানীয় সময় রাত ১০টা ৪০ মিনিটের দিকে কাবুলের পশ্চিমে শিয়া অধ্যুষিত একটি এলাকায় বিয়ের অনুষ্ঠানটি চলছিল।

এনবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, আফগানিস্তানের একজন সরকারি কর্মকর্তা তাদের জানিয়েছে, গত রাতের ওই বোমা হামলার ঘটনায় অন্তত ৬৩ জন নিহত হয়েছেন। আত্মঘাতী এক বোমা হামলাকারী বিস্ফোরণের মাধ্যমে বিয়ে বাড়িতে হামলা চালান।

ফিরোজ বাশারি নামে দেশটির সরকারের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, গত রাতের ওই হামলায় ১৮২ জন বেসামরিক নাগরিক আহত হয়েছেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নুসরাত রহিমী বলেছেন, বিয়ে বাড়িতে আমন্ত্রিত অতিথি সমাগমের ভেতর বিস্ফোরণ ঘটান হামলাকারী।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, এখন পর্যন্ত ভয়াবহ ওই হামলার দায় স্বীকার করেনি কোনো সন্ত্রাসী গোষ্ঠী। তবে সরকারে হামলার জন্য আফগান তালেবানকে দায়ী করছে। তবে তালেবানের পক্ষ থেকে সরকারের এমন দাবি প্রত্যাখ্যান করে বলা হয়েছে, হামলার সঙ্গে কোনোভাবে তারা যুক্ত নয়।

তবে আফগানিস্তনের প্রায়শই তালেবান এবং মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসীগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের সঙ্গে যুক্ত সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলো দেশটির রাজধানী কাবুলসহ বিভিন্ন প্রদেশে হামলা চালায়। গত ৭ আগস্ট কাবুল পুলিশ স্টেশনের কাছে ভয়াবহ বোমা বিস্ফোরণে ১৪ জন প্রাণ হারায়।

হামলার প্রত্যক্ষদর্শী গুল মোহাম্মদ বলেন, বিয়ে বাড়িতে গায়কদের জন্য তৈরি একটি মঞ্চের পাশেই বোমা বিস্ফোরিত হয়। হামলায় নিহতদের মধ্যে নারী-শিশু, কিশোর ও বৃদ্ধরাও রয়েছেন। হামলায় আহতদের একজন মোহাম্মদ তুফান বলেন, ‘বহু অতিথি নিহত হয়েছেন।’

গত ৩১ জুলাই আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলীয় ফারাহ প্রদেশে রাস্তার পাশে পুঁতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে ৩৪ বাসযাত্রী নিহত হয়। বালা বুলুক জেলার কান্দাহার-হেরাত মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে। এতে আহত হয় ১৭ জন।

এছাড়া গত ৭ জুলাই আফগানিস্তানে গোয়েন্দা বাহিনীর একটি কার্যালয়ে গাড়িবোমা হামলার ঘটনায় ১২ জন নিহত হয়। এর মধ্যে আটজনই নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য এবং বাকি চারজন বেসামরিক।

(Visited 19 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *