হাজতে বসে নিজের বৌভাতের খাবার খেলেন বর

রাতভর তদবির করেও শেষ রক্ষা হলো না খুলনার নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির ছাত্র ও খুলনার কর কমিশনার প্রশান্ত রায়ের ছেলে শিঞ্জন রায়ের (২৫)। ধর্ষণ মামলার আসামি তাকে হতেই হলো। আর তাতে নিজের বৌভাতেও থাকা হলো না তার।

ধর্ষিতা একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী বাদী হয়ে সোনাডাঙ্গা থানায় শুক্রবার মামলাটি দায়ের করেন। পুলিশ এ মামলায় আসামি শিঞ্জন রায়কে আদালতে চালান করবে বলে জানিয়েছে।

অন্যদিকে বর শিঞ্জন রায়কে ছাড়াই নগরীর শিববাড়ি এলাকার একটি অভিজাত হোটেলে চলছে বৌ-ভাতের অনুষ্ঠান। সেখান থেকেই খাবার পাঠানো হয় সোনাডাঙ্গা থানা হাজতে থাকা শিঞ্জনকে।

শিঞ্জন রায় পুলিশের হাতে আটক হওয়ার পর থেকেই তাকে মুক্ত করতে কর বিভাগের কতিপয় ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা থানায় যান তদবির করতে। রাতভর তারা থানায় অবস্থান করেন। শুক্রবার সকালেও পরিবারের পক্ষ থেকে হাজার চেষ্টা করা হয় শিঞ্জনকে মুক্ত করতে। ধর্ষিতাকে দেয়া হয় অনেক প্রলোভন। কিন্তু ধর্ষিতা নিজের সিদ্ধান্তে অটল থেকে মামলা দায়েরের সিদ্ধান্ত নেন। এসব দেখে শুনে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শিঞ্জনের মা সোনাডাঙ্গা মডেল থানা থেকে বেরিয়ে যান। কিন্তু সকল জল্পনার অবসান ঘটিয়ে ধর্ষিতা নিজে বাদী হয়ে মামলা দায়ের করায় শিঞ্জনের আর মুক্ত হওয়া হয়নি। তবে এই বিষয়ে মিডিয়ার সামনে মুখ খোলেনি শিঞ্জনের পরিবারের কেউ।

উল্লেখ্য, নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির এলএলবির এক ছাত্রীকে (২০) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে গতকাল রাতে খুলনার কর কমিশনার প্রশান্ত কুমার রায়ের ছেলে শিঞ্জন রায়কে (২৫) গ্রেফতার করে পুলিশ। এ ঘটনায় অন্তঃসত্ত্বা ছাত্রী বাদী হয়ে নগরীর সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় এজাহার দাখিল করেছেন।

(Visited 24 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *